কে বলেছে ফিরিয়ে দিতে শিশির ভেজা মাঠের কাছে,
আজকে আমার মন ভরে যায়, একটু যখন জমছে ঘাসে।
সবাই মিলে ছুটে গেছি রোজ সকালে পথ ছাড়িয়ে,
সেই সকালের কিশোর খেলা মনে পড়ায় তাক করিয়ে।

কে দিয়েছে রঙিন ঠোঁটের ফুল হাসিতে তরুলতায়,
ফ্যাল ফ্যালিয়ে চেয়ে আছে  আমার দিকে সরলতায়।
এই হেমন্তে ঘাসকে চটে পথকে ধরে যাচ্ছে হেঁটে,
শিশির ভেজা যায়রে নিয়ে পায়ে করে ঘেঁটে ঘেঁটে।

যায়রে হেঁটে বৃদ্ধ যোয়ান যায়রে হেঁটে অবুঝ ছেলে,
বলতে পারো ছোট্ট সোনা কে ভিজিয়ে  কোথায় এলে?
সকাল বেলার শিশির মাখা ধানের ডগায় ভর করেছে,
শিমের লতায় চুপিচুপি একটি ফোঁটা জল ঝরছে।

হলুদ রঙের শাড়ি পড়ে শুয়ে আছে মাঠ সরিষা

কলাই ক্ষেতের কচি শরীর হচ্ছে বড় সুপ্ত নেশা।

লাল শাকেরই পাতার কাছে ডাকছে যেন বারে বারে,

কেমন করে লাল হয়েছে প্রশ্ন করো একটু তারে।


রচনাকালঃ- ০২/০১/২০২৪