৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৪
এপ্রি ০২২০১৭
 
 ০২/০৪/২০১৭  Posted by

কবি পরিচিতি

পারু পারভীন

পারু পারভীন

পারু পারভীন। জন্ম ১৯৬৪ সালের ৫ ই ফেব্রুয়ারি। কবিতা লিখতে ভাল লাগে বেশি, তবে ছোট গল্পও লেখা হয়।

প্রকাশিত বইঃ ঘুড়ি (২০০৭); এখনো কবিতা (২০১৩)
পারু পারভীনের কবিতাভাবনা

যাপিত জীবন কে আমার কবিতা মনে হয়। সুখ-দুঃখ পাওয়া না-পাওয়া কান্না সব কবিতার মতো। কবিতা-কে জীবন মনে হয়, জীবনকে কবিতা। জীবনানন্দ কবিতায় ছিলেন, না কবিতা তাঁর উপর। এত টানাপোড়েন উতরে গেছেন কবিতা কর্কট বুকের ভেতর বাসা বেঁধেছিলো বলে। কবিতার পাশে থাকলে নিরাপত্তা পাই।

পারু পারভীনের কবিতা


রমণী

হয়তো ব্যস্ত আছো
নতুন নাটকের নির্দেশনায়?
নাকি ছবি আঁকার ঘরে
আধশোয়া রেবতীর নগ্নিকায়?

খোলাচুল রিবনে সামলে
ডাগর চোখের পাতায়
মায়া পেতেছে বুঝি?

কোথায় এখন তুমি কবিতা না ক্লাসে?

ইষ্ট পাখিটার এত ভাব কেন
মিষ্টি করে ডাকে বলে?

সে এখন কোথায় প্রেম না বাহুতে?
হলুদ পিরাণ পরে কাকে ডাকছে ঋতু?

পরের ছবিটার জন্য কার মহড়া নিচ্ছো?
লজ্জা না ছুঁলে কি করে আঁকবে রমণী?

১৩/৩/২০১৭


বন্ধু আর প্রেমিক

বন্ধুহীন থাকা যায় নাকি প্রেম হীন একা?

এ বাজারে দুটোই লাগে।
বাড়ি আর রেস্তোরা!

বন্ধু আমায় বলে ভালো করে পায়জামায় গিটদে
দৌড়ালে যাতে খুলে না যায়।

আর প্রেমিক বলে উল্টো
খুলে ফেলো…..
নভোথিয়েটার দেখি আলোহীন ঘরে!
অন্ধকার এ্যাকুরিয়ামে দুটো গোল্ড ফিশ খেলছে।
একটা প্রেমিক আর একটা বন্ধু!
জানি বন্ধু অনেক দিন বাঁচবে,
শীত আসার আগেই পাতার মত ঝরে যাবে প্রেমিক।
পিঁপড়ার মত কবেই সে কাঁধে করে নিয়ে গেছে,
আলিঙ্গন আর চুমু।

২৩/৩/২০১৭


আমি তো আছি

তুমি নাই তো কি হয়েছে?
আমি তো আছি!
সঙ্গে একাকীত্ব রইলো।

তুমি নাই তো কি হয়েছে?
ঢাল হয়ে অতীত না হয় থাকলো কাছে।

কেউ কেউ চলে যাবার জন্য আসে,
এক পশলা বৃষ্টির মত।

মাটি না ভিজিয়ে পিপাসা না মিটিয়ে
রোদের মধ্যে এসে রোদেই চলে যায়।

এসব ভেবে মন খারাপ করতে নেই।

আবার বৃষ্টি হবে আবার ঝড়,
কারো জন্য বসে নেই বসন্ত?

২৭/৩/২০১৭


কবিতা দিবস

মাছ ধরলেই তো শুধু হয় না
এগুলোর লাফিয়ে লাফিয়ে মৃত্যু দেখতে হয়।
পচন রোধ করতে বরফে ঢাকতে হয়।

এরপর বাজার বাজার ছুট!

গৃহস্থের তো ফুল টাইম ঘর আর ঘর।

কবিতা করতে করতে অজ্ঞান হয়ে যাওয়া
এই তো কবিতা?

কবিকে যখন আর মানুষ মনে হয় না তখন
কবির কবিতা হয়ে ওঠা!

কবিতা দিবস?

যে ছেলেটা রোজ খালিপেটে কবিতা লেখে ওর কাছে খোঁজ কর।

যে রমণী চুরি করে লিখতে লিখতে খোঁচা খায়,
সে বোঝে ভিমরুল!

প্রতিদিন লেখার অপবাদ
কুঞ্চিত ভ্রু…
পুতে রাখা দীর্ঘশ্বাস।

২১/৩/২০১৭


এখনো কবিতা

এখনো কবিতা,
চুলের অরণ্যে বিলি সাঁতার কাটা
এখনো কবিতা,
চোখের লেকপাড় তিরতির কেঁপে যাওয়া
এখনো কবিতা,
পৌরষ ঠোঁটের পরিমন্ডল একা পাওয়া
এখনো কবিতা ইচ্ছার লৌহপেষণ মেতে থাকা।
এখনো কবিতা,
ধোঁয়ার কুণ্ডলীতে কথা বা অকথারা
এখনো কবিতা,
বাহুর সামিয়ানায় নিয়ে যাওয়া স্বপ্ন ও সবিতা
এখনো কবিতা,
রাতগুলো, দিনগুলো, ক্ষণগুলোর আলাপারিতা।


আকাশ

তোমার উদারতার কাছে,
মনসা একবার দীক্ষা নিতে চেয়েছিলো।

এই পথে বাড়ি ফিরি বটে,
চিহ্নের সবটুকু তোমার গায়ে লেপ্টে থাকে
আমার আঙুলে কিছুতে পাঁচ তারা ফোটে না।

মধ্যবিত্ত লজ্জা মাড়িয়ে গেছে আঁকার ওছিলায়
সেই থেকে আমিও নগ্ন প্রায়।

তোমার খোলা বুকে ভালবাসা নামধারী মুখ লুকায়
কী ভীষণ স্ফীত তোমার বক্ষ!
উদারতায় খুলে ও পড়েছে বৃষ্টির ওলান।

আমি ও কী উদার হতে পারি না?
ভুল গুলো ইরেজারে মুছে?

কী করে মনসা মঙ্গল ভাসাই নিরুদ্দেশে?
এই সব ভাবি বলে আর কবিতা আসে না!

১/৪/২০১৭

Loadingপ্রিয় তালিকায় রাখুন!
E