৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪
আগ ১৬২০১৭
 
 ১৬/০৮/২০১৭  Posted by

মামুন মুস্তাফা’র “কফিনকাব্য”


নর্তকীর উষ্ণ হৃদয়ে সম্রাটের পাপপতন দেখে অস্থির হয়নি প্রজাকুল। বরং তারা দুঃখের রসুইঘরে প্রাণ খুঁজে পেল। …এরপর আগুন আগুন চিৎকারে জ্বলছিল অনেক উঁচুর পানশালা। সম্রাট শোকবার্তা পাঠালেন- কফিনে তার শ্রদ্ধার্ঘ্য- নর্তকীর নিদ্রিত চোখে কুসুমঅন্ধকার- বিমর্ষ কফিনের পাশে কে যেন বলে উঠলো, এ প্রাণে কোনো দ্বিধা নেই, অধরে মায়ার মুরতি! নর্তকীর সমাধি-নীড়ে সম্রাটের পতনোন্মুখ মানচিত্র, বায়ুহীন বাঁশি…


জ্যোতিষীর কপাল ভাঙল। হাতের কীর্তি নির্ণয় যেন মহাকালের লীলা! উড়ে যায় কর্কট মীন বৃশ্চিক! জীবনের দরগায় এ যেন জ্যোতিষীরই মানত। মানুষের জীবননির্মিতি খেলায় জ্যোতিষী হার মানে নিজেই নিজেকে নির্ণয়ে। এবার পৃথিবীর দিকে ছড়াচ্ছে জ্যোতিষীর দেহভস্ম। ঈশ্বরের ডানায় লুকোনো তার জীবাশ্ম। ওই স্খলিত মমির ভেতরে সকল প্রতারণা। নীলা গোমেদ চুণীর গহ্বরে জ্যোতিষীর সন্ন্যাসকফিন। ভেঙে পড়ার আগে দেখে নেয় পতিত আয়ু, ঐন্দ্রজালিক মহাকালের মুখে জ্যোতিষীর নতুন আঁতুর ঘর…


জুতা সেলাইয়ের ভেতরে জেগে থাকে অনুকাব্য। প্রতিটি ফোড়নে বেরিয়ে আসে ‘জুতা আবিষ্কার’। মুচির আত্মার মতো বরুণ ভালবাসা নিয়ে জুতা হেঁটে যায়। মুচি ফিরে চলে মেঘের ভেতরে। যেখানে স্বপ্নেরা স্নান সারে। উৎকণ্ঠ বিশ্বাস নিয়ে মুচি পেরেক ঠোঁকে কফিনের কাঠে। সারাবেলা বসে থেকে কফিনকাঠ মেলে ধরে ঝিনুক-উত্তর। তোমারও সঙ্গী কেবল প্রতারণাটুকু! মুচির চোখের গোলকে ভেসে ওঠে পঞ্চম পেরেকে ঝলসে ওঠা কফিনকাঠ- জুতাপালিশের মতো বর্ণময় কবরের মাটি…


‘ঢোল বাজানোর হাড়’ গুণে গুণে এগিয়ে গেছে ঢুলী। ঢোলের প্রতিটি আঘাতের ভেতরে জেগে থাকে বাণিজ্যের স্বাদ। ঢুলীর জীবন যেন মায়াময়, ক্যামেরাবন্দী সে আয়ুষ্কাল। তবু সমস্ত মাড়িয়ে যাচ্ছে এক ছদ্মবেশী ঋণ, ঢুলীও ক্রমশ দিগন্ত রেখা পার হয়ে যায়। ঢোলকের বাজনার ভেতরে দুপুরের বৈবাহিকতা ফিরে পায় শ্মশানের অস্তিত্ব। সকালের বিরল হাওয়া ঢেকে দেয় ঢুলীর পরম্পরা জীবন- সফল বাণিজ্যের অস্থি খেলা করে তার বাদামকাঠের গাঢ় কফিনের কাছে…


মাঝি জলেশ্বরীর গল্প বলে। নদীর বাঁকে বাঁকে ঢেউয়ের দোলায় প্রসারিত হওয়া শাদা শাপলার কথা। উদয়াস্ত নদীকথা বুননে মাঝি বাঁধে বিপরীত স্রোত। গুণটানা হাতের রেখার সমান বায়ুহীন বাঁশি! ছৈয়ের ভেতরে ঝুলে থাকা হ্যারিকেনের চিমনি ঘষার মতো জীবনেরও কালো চিমনি মুছে নিতে চায় সে ক্রমাগত! তবু দাঁড়ের ভৈরবীতে শয্যা পাতে মাঝির উত্তুঙ্গ সংসার- মাঝিবউ কুপি জ্বালে মৃত্যুর সমান- কফিনের গন্ধ ভেসে আসে হাওয়ার কর্পুরে…


ভিখিরির ঝুলি ভরেছিল বায়ুহীন বাঁশি। কাঁচা, ভাঙা ঘরে ভ্রমর ওড়ার শব্দ- আর কিছু অনৈতিক তন্দ্রা এনেছিল রাবীন্দ্রিক সন্ধ্যা। ভিখিরি সেধেছিল বায়ুহীন বাঁশি আর মন্ত্রগাঢ় ধ্যান দিয়ে গাওয়া কোনো গান। ভিখিরি রাত চেয়েছিল খুব করে। দিনের লজ্জা যেন চুরি হয় আরেক রাতের যামে। ভিখিরির থলে তবু ভরে থাকে সারাটা দুপুর। খুঁদকুটো, কাঁড়াআকাঁড়া- হিশেব কষে ভিখিরি আড়াল তোলে এই এক ইহ জীবন! তখন কাঁসাইয়ের দূরাগত শ্বাস এসে লাগে কফিনকাঠে। ভিখিরি চেয়ে দেখে জ্যোৎস্নাপ্লাবিত চাঁদ তুলোর মতো উড়ে উড়ে পড়ে কবরের মাঠে, জেগে ওঠে ওখানেই গোরস্থানের প্লট…


ডাকপিয়নের আজ ছুটি। ডাকবাক্স হাওয়ায় দুলছে। অবিনাশী শক্তির দিকে আজ ধাবমান সকল সন্দেশ। ডাকপিয়ন নিত্যনতুন প্রযুক্তিভারে সকল কর্তব্যনিষ্ঠা নিয়ে আজ প্রত্নইতিহাস। জীবনমরণের মাঝামাঝি চলছে তার হিশেবনিকেষ। ছিটকে পড়া আকাক্সক্ষার সর্বনাশ নিয়ে বেড়ে উঠেছে ডাকপিয়নের শবযাত্রা। ওই কফিনের গাঢ় সমারোহে জেগে ওঠে ভাইবার…স্কাইপি কল…একুশ শতকের পৃথিবী…


গোরখোদক আলো জ্বালে। ভাঙে আকাশের নতমুখ, ভাঙে শোকের অবাধ পাথর। তবু তার বুকের ভেতরে হা হা শূন্যতা- ওই হাহাকার নিয়ে বেড়ে ওঠে বায়ুহীন বাঁশি। যমের বাড়ি চিনে নেয় সে কোদালের সখ্যতায়। হাড় ও করোটির কথনে জেনে যায় মানব অন্তরের খেলা। মাটির গভীরে ও কিসের রঙ? গোরখোদক মাটির দলার ভেতরে দেখে নিজেরই চেহারা- এ শয়নকক্ষ কার? নিজের শবযাত্রার কফিন নিজেই নামিয়ে নেয়, বলে- মরণের ভেতরে নির্মাণ করি দেহমাটির ভাস্কর্য…


মামুন মুস্তাফা

মামুন মুস্তাফা

মামুন মুস্তাফা। জন্মঃ ৩ জুলাই, ১৯৭১। জন্মস্থান: বাগেরহাট। যোগাযোগঃ বিসিসিপি, বাড়ি: ৮, সড়ক: ৩, ব্লক: এ, সেকশন: ১১, মিরপুর, ঢাকা ১২১৬। পেশাঃ একটি গবেষণামূলক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠানে কর্মরত।

প্রকাশিত গ্রন্থঃ কাব্যগ্রন্থঃ

সাবিত্রীর জানালা খোলা (১৯৯৮); কুহকের প্রত্নলিপি (২০০১; দ্বিতীয় মুদ্রণ ২০০৯); আদর্শলিপি : পুনর্লিখন (২০০৭); এ আলোআঁধার আমার (২০০৮, কলকাতা সংস্করণ ২০১৪); এ বদ্বীপের কবিতাকৃতি (২০০৯); পিপাসার জলসত্র (২০১০); শিখাসীমন্তিনী (২০১২); একাত্তরের এলিজি (২০১৩); শনিবার ও হাওয়াঘুড়ি (২০১৫)।

প্রবন্ধগ্রন্থঃ মননের লেখমালা (২০১২); অন্য আলোর রেখা (২০১৬)।

সম্পাদনা: লেখমালা একটি ত্রৈমাসিক সাহিত্যকাগজ ২০১৫ থেকে প্রকাশিত হচ্ছে।

ইমেল: mmustafa72@gmail.com

মোবাইল: ০১৭২৬৭০২৮৪৬

Loadingপ্রিয় তালিকায় রাখুন!
E