৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪
নভে ২৪২০১৬
 
 ২৪/১১/২০১৬  Posted by
সুবীর সরকার

সুবীর সরকার

চাঁদপুরাণ
– সুবীর সরকার

১।
এই পুরাণে কোন চাঁদ নেই
ব্যাসবাক্য সহ সমাস লিখি
ভাঙনের পাশে অপরাহ্নের
             আলো

২।
ঢেউহীন নদীগুলি। নদীজলে স্নান
                সারি।
প্রসঙ্গত বলা ভাল বাক্যগুলি জটিল
                 হচ্ছে

৩।
শুভবিবাহের গেট। বাদ্যবাজনায় স্মৃতিকাতরতা
                       জাগে
চোরাগোপ্তা বাঁশের বাঁশি
সম্পর্ক টিকিয়ে রাখে
           নির্জনতাই

৪।
জানি তো তোমার হাসিকাশির সংক্রমণতা
সংকোচে থাকি, দ্বিপ্রহর জাগিয়ে রাখি
একটি যথার্থ বনভোজন দৃশ্যসীমা
                 ডিঙোলে

৫।
এ মাঠে যাদুকর, পাখির কোরাস
আলোর শূন্যতায় মমি হয়ে থাকি
তবুও নিস্তার নেই, পর্দা জুড়ে
          গিটার ও গেরিলা

৬।
নৈশসংগীতগুলি দূর্বাঘাসে মোড়া
ক্ষতচিহ্ন জুড়ে লাটিম ঘোরে
ভেজা চোখের দিকে তাকাতে
             পারি না

Loadingপ্রিয় তালিকায় রাখুন!
E