৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৪
নভে ২৫২০১৬
 
 ২৫/১১/২০১৬  Posted by

taimur-khan

তৈমুর খানের ছ’টি কবিতা


দাঁড়কাকের ভাষা

এক দাঁড়কাকের ভাষা হয়ে যায় কবিতা আমার
কী কথা ? কী সমাচার ?  
দুপুর ভেঙে ভেঙে ওড়া একাকী জীবিকার

কত ঝড় — বৃষ্টি — রাত —  দুর্গম দিন
পার হয়ে যাই
একাকী চেঁচাই শুধু

গৃহস্থ বিলাসী ছাদ প্রপঞ্চ মায়ায় দাঁড়িয়ে থাকে
আমি তাকে অতিক্রম করি রোজ —
বিবেকের ঠোঙার স্তূপে এখনও কী কী অবশিষ্ট শব্দ আছে
খুঁজে খুঁজে দেখি

এই আমার অন্বেষণ
এই আমার কাতর বেঁচে থাকা


ব্যাকরণহীন

অতিজীবিতের কাছে ব্যাকরণহীন
সমস্ত প্রয়াস রেখে আসি
বাঁশির হলুদ সুরে অবিন্যস্ত দিন
কান্নার মতন তার হাসি
দুয়ার খুলে দেয় কপট দুয়ারী
রাঙা চোখে স্নেহান্ধ বিলাস
শুকনো বালিতে নদীর তরীও
ভেবে পায় তীব্র জলোচ্ছ্বাস

বর্ণমালার পিতার গান মনে আসে
আর মাতার গর্ভসঞ্চার
পাঠশালা নির্মাণ হলে সূর্য ওঠে
কে জানে ব্যাকরণ কার !


সময়ের দরোজা

যে দরোজা দিয়ে রোজ যাই
সেই দরোজায় ফিরে আসি
যুগের অন্ধ পথে
অন্ধরাই বাজায় বাঁশি

কোনও সুরের কাছেই সূর্য নেই
তবু হিম জ্বলে সকাল সকাল
নিজেকে মনে হয়
নিজেরই ভ্রমের পাখি

দীর্ঘ ঘুমের পর জেগে উঠেছি
অথবা জন্মান্তরেই আবির্ভাব
সময়ের দরোজাটি ঠিকঠাক আছে
বিবেক এসে খুলে দেয় কপাট


ধমক

ধমক খেতে খেতে
বিষণ্ণ প্রহরগুলি অন্ধকার ডেকে আনছে
এখন নিজেকে গোপন করার সময়

নিজের সঙ্গে কিছু জরুরি পরামর্শ
আর সত্যকে না বলতে পারার দুঃখ
নিজেরই সম্মুখে দাঁড়িয়ে আছে

নিজেকে বসতে বলছি
নিজস্ব কান্নাকে থামতে বলছি
নির্ভার হয়ে চেয়ে দেখতে বলছি আকাশ

ধমকগুলি জল্লাদের প্রাচুর্য হয়ে
আমার বিষণ্ণ পাহাড়ের ছায়ায় জেগে আছে
আমি নীরবতার কাছে শুশ্রূষা চেয়েছি


স্মৃতির পাতায়

খণ্ড খণ্ড স্মৃতির পাতায়
রাগ-বৈরাগ্য লেখা আছে
তোমার উঠোনে সন্ধেবেলায়
একা গিয়ে বসেছিলাম
ভালোবাসার শস্য ছিল
দুই ঠোঁটে খুঁটে খুঁটে কুড়িয়েছিলাম

শূন্য ঘরে অনেক জ্বর
সারারাত কেঁপেছিলাম
মৃত্যু এসে রেখেছিল হাত
তার হাতে হাত রেখেছিলাম

গন্ধপুষ্প ফুটেছিল
আমার শুধু মহুল বন
গোধূলির গৈরিক রঙে
গেয়েছিল মর্মগান

                    

নীরব যুদ্ধ

সব যুদ্ধ শেষ হলে
নীরব এক যুদ্ধ শুরু হয়
এই যুদ্ধে জয় নেই
পরাজয় নেই
এই যুদ্ধে সংশয়

অস্তিত্ব বিপন্ন হলে
কার কাছে যাবে ?
রক্ত ঝরলেও
কোনও দিন রক্তাক্ত হবে না
ক্ষতগুলি নিরাময়হীন
ক্ষতগুলি অদৃশ্য অলৌকিক

জীবন আর মৃত্যুর মাঝখানে
শুধু একটা নদী
নৌকাখানি স্রোতে ভেসে যায়
নৌকা চালাই আমি
আসলে নৌকায় চেপে বসে থাকি

যুদ্ধ চলে
নীরব যুদ্ধের দিন আজ !

Loadingপ্রিয় তালিকায় রাখুন!
E